বঙ্গবন্ধুর নামে ‘মাচাং’ উদ্বোধন করে পদ খোয়ালেন যুবলীগ নেতা – News Vibe24

বঙ্গবন্ধুর নামে ‘মাচাং’ উদ্বোধন করে পদ খোয়ালেন যুবলীগ নেতা - DesheBideshe

বগুড়া, ০৩ আগস্ট – বগুড়ায় ‘বঙ্গবন্ধু মাচাং’ উদ্বোধন করে আনিছার রহমান খলিল নামে এক যুবলীগ নেতা পদ হারিয়েছেন। খলিল সদরের নুনগোলা ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অসম্মান করা হয়েছে অভিযোগে তাকে সংগঠনটি থেকে বহিষ্কার করা হয়।

জানা গেছে, মাচাংটি উদ্বোধনের সময় গোকুল ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম উপস্থিত থাকলেও তার বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এতে করে তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

গত রোববার দুপুরে দুপুরে বগুড়া সদর উপজেলার আশোকোলা গ্রামে বঙ্গবন্ধুর নামে বাঁশের তৈরি একটি মাচাং উদ্বোধন করেন আনিছার রহমান খলিল। উদ্বোধন অনুষ্ঠানের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্টের পর থেকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অসম্মান করা হয়েছে, এমন অভিযোগ তুলে খলিলকে বহিষ্কার করে ইউনিয়ন যুবলীগ।

স্থানীয়রা জানান, যুবলীগ নেতা খলিল আসন্ন ইউপি নির্বাচনে বগুড়া সদরের নুনগোলা ইউনিয়নে সদস্য পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন। এ জন্য তিনি এলাকায় নির্বাচনি কাজ করছেন। গ্রামের লোকজন নিয়ে আড্ডা দেওয়ার জন্য তিনি আশোকোলা দক্ষিণপাড়ায় রাস্তার মোড়ে একটি বাঁশের মাচাং তৈরি করেন। আর সেই মাচাংয়ের নাম দেওয়া হয় ‘বঙ্গবন্ধু মাচাং’। এদিন বিকেলে গোকুল ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলামকে সঙ্গে নিয়ে বঙ্গবন্ধু মাচাংয়ের উদ্বোধন করেন খলিল। গতকাল সোমবার রাতে তাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়।

এ ব্যাপারে খলিলের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তাকে পাওয়া যায়নি। আজ মঙ্গলবার দুপুরে বগুড়া জেলা যুবলীগ সভাপতি শুভাশিষ পোদ্দার লিটন এসব তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ‘সংগঠনের শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজ করায় যুবলীগ নেতা আনিছার রহমান খলিলকে দলের প্রাথমিক সদস্য পদ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।’

জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ডাবলু বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি নজরে আসে জেলা যুবলীগ নেতাদের। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার রাত ৯টার দিকে আনিছার রহমান খলিলকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়।’

বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নেতা রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধ দ্রুত ব্যবস্থা নিতে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

এ বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে বগুড়া সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সুফিয়ান সফিক বলেন, ‘আমি ওই নেতাকে চিনি না। এজন্য বুধবার ওই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ডেকে পাঠানো হয়েছে। তাদের কাছ জানার পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সূত্র : আমাদের সময়
এন এ/ ০৩ আগস্ট

(function(d, s, id){
var js, fjs = d.getElementsByTagName(s)[0];
if (d.getElementById(id)) return;
js = d.createElement(s); js.id = id;
js.src = “https://connect.facebook.net/bn_BD/sdk.js#xfbml=1&version=v3.2”;
fjs.parentNode.insertBefore(js, fjs);
}(document, ‘script’, ‘facebook-jssdk’));

Newsvibe24 Source