নিজেদের তৈরি টিকা বাজারে আনল তাইওয়ান – News Vibe24

নিজেদের তৈরি টিকা বাজারে আনল তাইওয়ান - DesheBideshe


তাইপে, ২৩ আগস্ট – করোনা মহামারি প্রতিরোধে নিজেদের তৈরি করোনা টিকা মেডিজেন বাজারে এনেছে তাইওয়ান। সোমবার তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং ওয়েন মেডিজেনের প্রথম ডোজ নিয়েছেন। খবর রয়টার্সের

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় গত মাসে মেডিজিন টিকা জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে। তবে এই টিকার বিভিন্ন স্তরের ট্রায়াল এবং করোনার বিরুদ্ধে মেডিজেনের কার্যকারিতা বিষয়ক তথ্য সরকারের পক্ষ থেকে এখনও জানানো হয়নি।

প্রেসিডেন্ট সাই ইং ওয়েনের টিকার ডোজ নেওয়ার সেই দৃশ্য সরাসরি তাইওয়ানের সরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এবং সাই ইং ওয়েনের ফেসবুক পেজে সম্প্রচার করা হয়েছে। ডোজ নেওয়ার আগে সাংবাদিকরা তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টকে প্রশ্ন করেছিলেন, তিনি ‘নার্ভাস’কিনা। উত্তরে প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন, তিনি কোনওভাবে নার্ভাস না।

পরে নিজের ফেসবুক পেজে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট লিখেছেন, ‘টিকার ডোজ নেওয়ার সময় বা পরে আমি কোনো ব্যাথা বোধ করিনি। আমি ভালো আছি, প্রতিদিনের কার্যক্রম শুরু করেছি।’

তাইওয়ানের সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত বছর যখন করোনা মহামারি বেড়ে গিয়েছিল তখন মাস্কের ঘাটতি দেখা গেছিল। তখন তারা বুঝতে পেরেছে, জটিল পরিস্থিতিতে নিজেদের উৎপাদিত উপকরণের উপরই ভরসা রাখবে হবে। ্রই ধারাবাহিকতায় নিজস্ব টিকা তৈরির ব্যাপারে জোর দিয়েছেন।

তাইওয়ানভিত্তিক ওষুধ ও টিকা প্রস্তুতকারী কোম্পানি মেডিজেন ভ্যাকসিন বায়োলজিকস কর্পোরেশন ও যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি স্বাস্থ্যসেবা সংস্থা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথ এর যৌথ প্রচেষ্টায় তৈরি করা হয়েছে করোনা টিকা মেডিজেন। ফাইজার-বায়োএনটেক এবং মডার্নার মতো মেডিজেনও রিকম্বিনেন্ট প্রোটিনসমৃদ্ধ করোনা টিকা।

মেডিজেনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা চার্লস চেন জানিয়েছেন, অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তারা এই টিকা নিরাপদ বলে নিশ্চিত হয়েছেন।

প্রাথমিকভাবে ৫০ লাখ টিকা বাজারে আনা হয়েছে। তবে তাইওয়ান সরকারের পক্ষ থেকে ,এই টিকা নেওয়ার ব্যাপারে কাউকে বাধ্য করা হবে না বলে জানানো হয়েছে।

তাইওয়ানের প্রধান বিরোধী দল, কুওমিনতাং, দেশীয় তৈরি টিকাকে সমর্থন করলেও, মেডিজেনের অনুমোদনের তাড়াহুড়া করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছে।

তাইওয়ানের ৪০ শতাংশ মানুষ এখন পর্যন্ত অ্যাস্ট্রাজেনেকা বা মডার্না টিকার এক ডোজ বা দুই ডোজ পেয়েছেন। যদিও দেশটির ৫ শতাংশেরও কম মানুষ এখন পর্যন্ত টিকার আওতায় এসেছে।

এশিয়ার অন্যান্য দেশের তুলনায় তাইওয়ানে করোনা সংক্রমণ তুলনামুলকভাবে কম। এখন পর্যন্ত দেশটিতে ১৫ হাজার ৯৩২ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে মারা গেছেন ৮২৮ জন।

সূত্র: সমকাল
এম ইউ/২৩ আগস্ট ২০২১

(function(d, s, id){
var js, fjs = d.getElementsByTagName(s)[0];
if (d.getElementById(id)) return;
js = d.createElement(s); js.id = id;
js.src = “https://connect.facebook.net/bn_BD/sdk.js#xfbml=1&version=v3.2”;
fjs.parentNode.insertBefore(js, fjs);
}(document, ‘script’, ‘facebook-jssdk’));